Tuesday, October 4, 2022
Homeঅন্যান্যইডি কি | গঠন, কার্যাবলী, দপ্তর, নিয়োগ পদ্ধতি

ইডি কি | গঠন, কার্যাবলী, দপ্তর, নিয়োগ পদ্ধতি

ইডি (ED) সম্বন্ধীয় যাবতীয় তথ্য

ইডি কি, ইডির কাজ, ইডির দপ্তর, ইডি কীভাবে হওয়া যায়

ইডি কি | গঠন, কার্যাবলী, দপ্তর, নিয়োগ পদ্ধতি
ইডি সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য

সুপ্রিয় বন্ধুরা,
এখন যেকোনো খবরের চ্যানেল খুললেই উমুক নেতা বা ব্যক্তির কাছ ED (ইডি) এতো কোটি টাকা উদ্ধার করলো এই ধরনের নিউজ দেখতে পাওয়া যায়। কিন্তু কি এই ED (ইডি) এই বিষয়ে অনেকেই ঠিকমতো জানেন না।

তাই আজকের পোস্টে ইডি সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য তথা ED এর পুরো কথা কি, ED কি, ED এর কাজ কি এবং ED হতে গেলে কি যোগ্যতা লাগে এই সমস্ত কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা করলাম। আপনাদের বোঝার সুবিধার্থে প্রশ্নোত্তরের মাধ্যমে আলোচনা করা হয়েছে।

আমরা আশা রাখছি আমাদের এই আর্টিকেলটি পড়ার পর ED সম্পর্কে আপনি একটা স্বচ্ছ ধারণা লাভ করতে পারবেন এবং যারা এই ED সম্পর্কে জানে না তাদেরকেও বিস্তারিতভাবে জানাতে বা বলতে পারবেন।

ইডি (ED) এর পুরো নাম কি ?

ইডি (ED) যার পুরো নাম হল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (Enforcement Directorate)।

ইডি (ED) কি ?

এটি ভারত সরকার অধীনস্ত একটি স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত আর্থিক তদন্তকারী সংস্থা। মূলত দেশের অভ্যন্তরে কোন ব্যক্তি বা কোনো সংস্থা বা অন্য কোনো প্রতিষ্ঠান মাধ্যমে আর্থিক তছরুপ হলে তার তদন্ত করে এবং দোষীকে চিহ্নিত করে। এছাড়াও ভারত সরকারের হিসাবের বাইরে বিদেশি সম্পত্তিই হোক বা মানি লন্ডারিং এর মতো অবৈধ সম্পদের উৎস-র আর্থিক অপরাধমূলক কাজ দমনের করে থাকেন।

ইডি (ED) এর কাজ কি ?

ইডি মূলত ফরেন এক্সচেঞ্জ ম্যানেজমেন্ট অ্যাক্ট, 1999 (FEMA) এবং প্রিভেনশন অফ মানি লন্ডারিং, 2002 (PMLA) এবং ফুজিটিভ ইকোনোমিক অফান্ডার্স অ্যাক্ট, 2018 (FEOA ) এর বিধানগুলি বাস্তবায়িত করার লক্ষ্যে কাজ করেন।

ইডি (ED) সংস্থা গঠনের ইতিহাস

ভারত সরকার কর্তৃক অর্থনৈতিক বিভাগের তত্ত্বাবধানে ক ১লা মে ১৯৫৬ খ্রিস্টাব্দে ‘এনফোর্সমেন্ট ইউনিট’ গঠনের সাথে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল এবং ফরেন এক্সচেঞ্জ রেগুলেশন অ্যাক্ট, 1947 (FERA 1947) এর অধীনে এক্সচেঞ্জ নিয়ন্ত্রণ আইন লঙ্ঘন পরিচালনা করে। তার এক বছর পরে, এনফোর্সমেন্ট ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট করা হয়। এটি এখন ভারত সরকারের অর্থমন্ত্রকের অধীনস্ত রাজস্ব বিভাগের অন্তর্গত।

ইডি (ED) দপ্তর

  • সদর দপ্তর

এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি এর সদর দপ্তর নিউ দিল্লিতে অবস্থিত।
এই সংস্থাটির বর্তমানে অধিকর্তা আছেন সঞ্জয় কুমার মিশ্র (আই আর এস)।

  • আঞ্চলিক দপ্তর

গোটা ভারতবর্ষকে কলকাতা, চেন্নাই,মুম্বাই, দিল্লি ও চন্ডীগড় এই পাঁচটি আঞ্চলিক কার্যালয়ের বিভক্ত রয়েছে। এই আঞ্চলিক কার্যালয় গুলি ইডির বিশেষ আধিকারিকের দায়িত্বে থাকে।

  • জোনাল অফিস

ইডির জোনাল অফিসগুলি পুনে, ব্যাঙ্গালোর, চন্ডীগড়, শ্রীনগর, চেন্নাই, কোচি, দিল্লী, পানাজি, গুয়াহাটি, হায়দ্রাবাদ, জয়পুর, জলন্ধর, কলকাতা, লখনউ, মুম্বাই এবং পাটনায় অবস্থিত। এই জোনাল অফিস গুলো একজন করে যুগ্ম আধিকারিকের দায়িত্বে থাকে।

  • সাব-জোনাল অফিস

ইডির সাব জোনাল অফিসগুলি ম্যাঙ্গালোর, ভুবনেশ্বর, নাগপুর, মাদুরাই,, বিশাখাপত্তনম, এলাহাবাদ, রায়পুর রাঁচি, সুরাট, সিমলা, দেরাদুন ও জম্মুতে অবস্থিত।এই সাব জোনাল অফিসগুলি একজন উপ আধিকারিকের দায়িত্বে থাকে।

ইডির অফিসার পদের যোগ্যতামান

ইডির অফিসাররা হলেন দ্বিতীয় শ্রেণীর কর্মচারীর অন্তর্ভুক্ত। ইডি অফিসার হতে গেলে সরকারী স্বীকৃতি প্রাপ্ত ইউনিভার্সিটি থেকে নূন্যতম গ্র্যাজুয়েশন পাশ হতে হবে। বয়সের যোগ্যতা মান 18-30 বছর। তবে সংরক্ষিত শ্রেণীর প্রার্থীরা ক্ষেত্রে অতিরিক্ত 5 বছর পর্যন্ত ছাড় পাবেন। তবে এই পদের ক্ষেত্রে বিশেষ ভাবে অক্ষম প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন না। এছাড়াও তাকে ভারতীয় নাগরিক হতে হবে।

ইডি অফিসার কীভাবে হওয়া যায় ?

  • এসএসসি সিজিএল (SSC CGL) পরীক্ষার মাধ্যমে ইডি হওয়া যায়।
  • কেন্দ্রীয় সরকারের অফিসার র‍্যাঙ্কের কোনো চাকরীর (ইনকাম টেক্স, সিবিআই, আবগারি দপ্তর) পদোন্নতির মাধ্যমেও হওয়া যায়।

ইডির নিয়োগের পরীক্ষার মাধ্যম

এসএসসি সিজিএল (SSC CGL) পরীক্ষার মাধ্যমে ইডির নিয়োগ হয়, পরীক্ষা হয় প্রধানত চারটি পর্যায়ে –

  • Tier 1 পরীক্ষা (২০০ নম্বর)
  • Tier 2 পরীক্ষা (৪০০ নম্বর)
  • Tier 3 পরীক্ষা (১০০ নম্বর)
  • Document Verification

■ ED Official Website : Visit Now

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Recent posts

popular posts