Sunday, June 16, 2024
Homeজীবনীবিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় জীবনী | Justice Abhijit Gangopadhyay Biography in Bengali

বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় জীবনী | Justice Abhijit Gangopadhyay Biography in Bengali

বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের জীবনী

বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় জীবনী PDF | Justice Abhijit Gangopadhyay Biography in Bengali

বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় জীবনী
বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় জীবনী

সুপ্রিয় বন্ধুরা,
আজ আমরা আপনাদের কাছে তুলে ধরলাম চাকরি প্রার্থীদের ভগবান বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের জীবনী। এই পোস্টটির মাধ্যমে আপনারা অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের শিক্ষা জীবন, কর্ম জীবন এবং উল্লেখযোগ্য কিছু রায় সম্বন্ধে জানতে পারবেন।

“যারা দুর্নীতি করেছে,
ধরা পড়লেই চাকরি যাবে।
যারা অসৎভাবে চাকরি পেয়েছে,
সবার চাকরি যাবে।
তারা কেউ যেন নিশ্চিন্তে না থাকে।”

আমাদের সমাজে আদর্শনিষ্ঠ, সৎ ও নীতিপরায়ণ মেধাবী প্রতিবাদী চাকুরীপ্রার্থীরা পড়ে রয়েছে দিনের পর দিন ওই আস্তাকুঁড়ে। হয়তো ওনার হাত ধরেই সামনে আসবে ওই সমস্ত চাকুরী প্রার্থীদের পরিপন্থী দুর্নীতির সেই অদৃশ্য কালো হাত।

নামঅভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়
জন্ম১৯৬২
ধর্মহিন্দু
জাতীয়তাভারতীয়

স্বাধীনতার পরবর্তী ইতিহাসে একবিংশ শতকের সমস্ত শ্রেণীর চাকুরিপ্রার্থীরর কাছে ঈশ্বরের অগ্রদূত হলেন একজন বাঙালী আইনজীবি তথা বিচারক অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় মহাশয়।

শিক্ষা জীবন :

অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় কলকাতার বাংলা মিডিয়াম স্কুল ‘মিত্র ইনস্টিটিউশনে’ (মেন) স্কুল জীবনের পড়াশোনা করেন। ১৯৭৯ খ্রিস্টাব্দে স্কুল শিক্ষা সমাপ্ত করে ‘হাজরা ল কলেজে’ শিক্ষা অধ্যয়ন করেন। এ সময় তিনি ‘অমিত্র চন্দ্র’ নামক বাংলা রঙ্গমঞ্চের সাথেও যুক্ত ছিলেন।

কর্মজীবন :

গঙ্গোপাধ্যায় মহাশয় তার কর্মজীবন শুরু করেন উত্তর দিনাজপুর জেলার পশ্চিমবঙ্গ সিভিল সার্ভিসের ‘এ’ গ্রেডের অফিসার হিসেবে। কিন্তু পরবর্তীতে সরকারী স্তরের দুর্নীতির কারণে তিনি চাকুরী থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর কলকাতা হাইকোর্টে রাজ্য আইনজীবি হিসাবে অধ্যায়ন শুরু করেন। এখানে তিনি দীর্ঘ ১০ বছর আইনজীবি হিসাবে কাজ করেন। এরপর ২০১৮ খ্রিস্টাব্দের ২রা মে তিনি কলকাতা হাইকোর্টের অতিরিক্ত বিচারপতি হিসাবে নিযুক্ত হন এবং ২০২০ খ্রিস্টাব্দে ৩০শে জুলাই হতে তিনি কলকাতা হাইকোর্টের স্থায়ী বিচারপতি হিসাবে নিযুক্ত হন। এযাবৎ তিনি এই আসনে অধিষ্ঠিত হয়ে বেশ কয়েকটি উল্লেখযোগ্য রায় দান করে চলেছেন।

উল্লেখযোগ্য রায় দান:

৬০ ঊর্ধ্ব আইনজীবী হিসেবে তিনি যে কয়েকটি রায় দান করেছেন তা কতটা গুরুত্বপূর্ণ তা বলার অপেক্ষা রাখে না। দুর্নীতি সংক্রান্ত মামলায় তিনি আগ্রাসন মনোভাবের দ্বারা একের পর এক উল্লেখযোগ্য রায় দিতে থাকেন। ৭৬ বৎসর বয়সের স্কুল শিক্ষিকার দীর্ঘ পঁচিশ বৎসরের বকেয়া বেতন পাইয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা থেকে শুরু করে ক্যানসারে আক্রান্ত শিক্ষিকার ১২ দিনের বেতন অন্যায়ভাবে কেটে নেওয়ায় প্রধান শিক্ষকের পদ কেড়ে নিয়ে, তার বকেয়া নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়ে বিচার ব্যবস্থায় বিচারকের মানবিক মুখের বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

২০২১ সালের নভেম্বর থেকে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় এজলাসে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় পশ্চিমবঙ্গ স্কুল সার্ভিস কমিশনের বিরুদ্ধে সিবিআই তদন্তের একাধিক নির্দেশনা দেন। এরপর রাজনৈতিক পরিস্থিতি সংকটাপন্ন হয়ে দাঁড়ালে গঙ্গোপাধ্যায় মহাশয় স্কুল সার্ভিস কমিশনের কথিত অনিয়মের ক্ষেত্রে ডিভিশন বেঞ্চের পদক্ষেপের বিষয়ে ভারতের প্রধান বিচারপতির হস্তক্ষেপ চেয়ে একটি চিঠি লিখেছিলেন। ২০২২ সালের ১৩ই এপ্রিল তিনি এমনকি আদালত বয়কটের সিদ্ধান্ত নেয়। রাজনৈতিক শাসনাধীন প্রাপ্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও প্রাপ্তন শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী তদন্তকারী অনুসন্ধান তারই রায় দানের ফল।

বর্তমানে বিচারক অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় মহাশয় শিক্ষা সংক্রান্ত মামলা গুলির সঙ্গে যুক্ত আছেন।
সম্প্রতি ১৯১১ জন এসএসসি গ্রুপ ডির চাকরি বাতিল তারই রায় দানের ফল।

অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় জীবনী PDF

File Details :


File Name : Justice Abhijit Gangopadhyay Biography
Language : Bengali
No. of Pages : 01
Size : 0.4 MB

আরও দেখুন :
RELATED ARTICLES

16 COMMENTS

  1. খুব ভালো লাগলো, উনার মতো একজন প্রতিবাবান ব্যাক্তির ব্যাপারে জানতে পেরে। ধন্যবাদ।

  2. 🙏 স্যার, এভাবেই সারাজীবন দুর্নীতির বিরুদ্ধে এবং সত্যের পক্ষে রায় দিন🙏

  3. আমার আপনার এবং সকল মাননীয় আদালতের সকলের গর্ব তাঁর সুবিচার এবং বিশেষ করে শিক্ষা জগতের আপাতত দুর্নীতি বিষয়ক মামলার যুগান্ত কারী রায় !!! সকল বিচারপতি ই সমান সন্মাণ অধিকারি তবুও ক্ষেত্র বিশেষে মাননীয় জাস্টিস অভিজিৎ গাঙ্গুলি কে বিশেষ সান্মানিক স্যালুট দিতেই হবে ! নিন্দুক হিংসুটে বিরোধী ও স্বার্থ পর মানুষ তথা অশিক্ষিত অর্ধ শিক্ষিত সবজান্তা দের মুখে ন্যাড়া ঝাঁটা মুড়ো ঝাঁটা যে ভাবে মারলেন উনি বিচার প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তা পশ্চিম বঙ্গে তথা ভারত বর্ষে আর আমার ছাত্র জীবন থেকে চাকুরি জীবনের শেষ কালে এই প্রথম দেখলাম! অগুনিত স্যালুট স্যার আপনাকে!!

      • চোর-ছেঁচোড় দের ভিরে সৎ, নিষ্ঠাবান মানুষের টিকে থাকা মুশকিল। বিচারক শ্রী গঙ্গোপাধ্যায়ের শুধু অন্যায়ের বিরুদ্ধে দৃঢ় রায়দান নয়। কায়েমি, মিথ্যাচারি সরকারের বিরুদ্ধে তার এই অসম লড়াই আমাদের অভিভূত করেছে। কটা ধেড়ে ইঁদুর কে গারদে চালান করতে পারবেন জানিনা। ক’বঞ্চিত-র মুখে হাসি ফোটাতে পারবেন। জানি না। কেননা গোটা সিস্টেমটাকেই কজ্বা করে পচিয়ে দিয়েছে।

  4. I know him ,when he was practicing at Colkata High Court.He is a man of honesty, gentle in nature after all able to take good decision .Thank you.

  5. Sir , I am proud to u apni achhen tarjonno apnake asonkho pronam apnar charone ,, ayvave apni j vave kaj korchhen sarajibon kritogga thakbo apnar kachhe

  6. We, All Bengaleese are very proud of Him, because We see that our constitution is being protected by some of our great justices like Him. We, All salute to Him.

  7. বিরল বেক্তিত্ব… স‍্যার অভিজিৎ গাঙ্গুলী ..আপনার অকুতোভয় রায়দান আপামর পশ্চিমবঙ্গ বাসী তথা ভারতবাসির কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে……আপনাকে হৃদয়ের অন্তস্থল থেকে প্রনাম 🙏🙏🙏🙏জানাই..আপনার সুস্থতা কামনা করি.দেশের এবং দশের জন‍্য আপনার ভালো থাকাটা খুবই জরুরি..
    🙏🙏🙏🙏🙏🙏🙏🙏

  8. ভগবান, যাদের স্বার্থ থাকে না লোভ থাকেনা তারা ভগবান ই। 🙏🙏🙏🙏🙏🙏 বহু বছর পর পর এমন মানুষ রুপী মহাপুরুষের উদয় হয়। 🙏🙏🙏

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Recent posts

popular posts